মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

অামাদের অর্জন

ক)  বাংলাদেশের অর্থনীতিতে বস্ত্র ও পাট খাতের ভূমিকা এবং গুরুত্ব অপরিসীম। এক সময় পাট ও পাটজাত দ্রব্যই ছিল এ দেশের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের প্রধান উৎস। স্বাধীনতার প্রথম বছর বাংলাদেশের মোট বৈদেশিক মুদ্রা আয়ের শতকরা ৮৪ ভাগেরও বেশি অর্জিত হয়েছিল পাট ও পাট পণ্য থেকে। সোনাল আঁশ খ্যাত বাংলাদেশের পাট গুণে ও মানে বিশ্বসেরা। এর চাহিদা গুরুত্ব ও মর্যাদা রয়েছে সারাবিশ্ব। পাট উৎপাদনে বিশ্বে বাংলাদেশের স্থান দ্বিতীয় এবং ভারত প্রথম। কাঁচা পাট রপ্তানীতে বাংলাদেশের অবস্থান পৃথিবীতে প্রথম।

খ)  "পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০" এবং "পণ্যে পাট জাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার বিধিমালা-২০১৩" এর সফল প্রয়োগ ও বাস্তবায়ন। ৩০ নভেম্বর ২০১৫ থেকে মাসব্যাপী বিশেষ অভিযানের মাধ্যমে  "পণ্যে পাট জাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০" এর বাস্তবায়ন নিশ্চিত করণে সারা দেশে সাড়াশি অভিযান চলে। সে অভিযানে কুষ্টিয়া জেলায় আইনটির বাস্তবায়ন সন্তোষজনক হওয়ায় কুষ্টিয়ার তৎকালীন জেলা প্রশাসক জনাব সৈয়দ বেলাল হোসেন রাষ্ট্রীয় সম্মাননা অর্জন করেন গত ০৬-০৩-২০১৬ তারিখে।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter